মেনু নির্বাচন করুন

এক নজরে সরই ইউনিয়ন

এক নজরে সরই ইউনিয়ন পরিচিতি

 

০৫ নং সরই ইউনিয়ন।

বান্দরবান পার্বত্য জেলার লামা উপজেলাধীন  সুজনা-সুফলা, পাহাড়-নদী বেষ্টিত অনিন্দ্য সুন্দর একটি ইউনিয়ন। ১৯৮৪ সালের অত্র এলাকায়র একটি প্রশাসনিক ইউনিট হিসেবে ০৫ নং সরই ইউনিয়ন প্রতিষ্ঠিত হয়। প্রায় ৯৪.২৪ বর্গকিলোমিটার এলাকা নিযে এই ইউনিয়ন টি গঠিত । ভৌগলিক ভাবে এই ইউনিয়নের উত্তরে বান্দরবান সদর উপজেলার টংকাবতি ইউনিয়ন, দক্ষিণে লামা উপজেলার গজালিয়া  ইউনিয়ন, পূর্বে রুমা উপজেলার গালেংগ্যা ইউনিয়ন এবং পশ্চিমে লোহাগাড়ার পুটিবিলা,চুনতি ইউনিয়ন ও লামা উপজেলার আজিজনগর ইউনিয়ন অবস্থিত । সরই ইউনিয়ন টি ০৩ টি মৌজা র সম্বনয়ে গঠিত, যথা, ৩০১ নং সরই মৌজা, ৩০৩ নং ডলুছড়ি মৌজা এবং ৩০৪ নং লেমুপালং মৌজা। উক্ত মৌজাগুলো বোমাং সার্কেল দ্বারা শাসিত।

সরই ইউনিয়নের নামকরণের তেমন কোন ইতিহাস জানা যায়না। তবে, সরই ইউনিয়ন প্রশাসনিক ভাবে সরই নামে পরিচিত হলেও লোকেমুখে এটি কেয়াজু পাড়া নামে সমধিক পরিচিত। ত্রিপুরা হেডম্যান মৃত কেয়াজু ত্রিপুরার নামে একটি পাড়া হতে এই নামের উৎপত্তি। 

সড়ক পথে যাতায়ত এই ইউনিয়নের একমাত্র যোগাযোগের মাধ্যম। মূলত সরই ইউনিয়ন টি চট্টগ্রামের লোহাগাড়া ্উপজেলা, বান্দরবান সদর উপজেলা ও লামা উপজেলার মধ্যবর্তী স্থানে অবস্থিত। বান্দরবান সদর উপজেলার সুয়ালক ইউনিয়নের মাঝের পাড়া হইয়া টংকাবতি ইউনিয়নের মধ্য দিয়ে সড়ক পথে এর দুরত্ব প্রায় ৪৬ কি: মি। লোহাগাড়া হতে সড়ক পথে দরবেশ হাট ও পুটিবিলা ইউনিয়নের এমচর হাট হইয়া সড়ক পথে  এর দুরত্ব প্রায় ১৯ কি: মি। লামা উপজেলা হতে গজালিয়া ইউনিয়ন হইয়া সড়ক পথে সরই ইউনিয়নের দুরত্ব প্রায় ২৪ কি:মি।

ত্রিপুরা,ম্রো উপজাতিরা অত্র এলাকার প্রাচীন নৃ-গোষ্ঠী। পরবর্তীতে বাঙালীদের বসবাস শুরু হয়। এখন ত্রিপুরা, ম্রো, মার্মা, তংচংগ্যা,চাক ও বাঙালী জনগোষ্ঠীর প্রায় ১৫,০০০ এর অধিক জনগণ অত্যন্ত শান্তিপূর্ণ ভাবে অত্র ইউনিয়নে বসবাস করছে।